অন্যান্যধর্মবাংলাদেশব্লগার নিউজ

কক্সবাজারে প্রবাসী সংখ্যা-লঘুর পরিবার কে হত্যা করেছ দুর্বৃত্বরা.

রোকন বড়ুয়ার(কুয়েত প্রবাসী) পরিবারের দুই শিশু-সহ চারজনকে গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্বরা..

কক্সবাজারের উখিয়ার রত্নাপালং গ্রামে গত ভোর রাতে এ ঘটনা ঘটে এবং পুলিশ ও স্থানীয়দের ধারণা, ভবনের ওপরের সিঁড়িঘর দিয়েই দুর্বৃত্তরা ঘুরে ঢোকে এবং একে একে সবাইকে নির্মম ভাবে হত্যা করে।

রোকন বড়ুয়ার ভাগ্নি প্রিয়াঙ্কা বড়ুয়া বলেন, তাঁর মামা রোকন বড়ুয়া ১৫ বছর ধরে কুয়েতে চাকরি করে আয়-রোজগার করছেন। কয়েক বছর পরপর তিনি দেশে এসে কয়েক মাস থেকে আবার কুয়েত চলে যান। দুই মাস আগেও তিনি দেশে এসেছিলেন। ১০ থেকে ১২ দিন আগে তিনি কুয়েত ফিরে গেছেন। রত্নাপালং গ্রামে তাঁর একতলা বাড়ি আছে। সেই বাড়িতে থাকতেন রোকন বড়ুয়ার মা সখী বড়ুয়া, স্ত্রী নিলা বড়ুয়া, দুই ছেলে রবীন ও সনি। তিনি বলেন, ‘দুর্বৃত্তরা একে একে চারজনকে গলা কেটে হত্যা করল।এ ঘটনায় নিহত ব্যক্তিরা হলেন রোকন বড়ুয়ার মা সখী বড়ুয়া (৫০), স্ত্রী নিলা বড়ুয়া (২৫), ছেলে রবীন বড়ুয়া (৪) ও দেড় বছর বয়সী ছেলে সনি বড়ুয়া।

আমরা এই নৃশংস হত্যাকান্ডের তীব্র নিন্দা জানাই। যে দুর্বৃত্বরা দেড় বছরের শিশু সন্তানকে গলা কেটে মারতে পারে, সে যেই হোক.. মানুষ নয়, পশু। আমরা দ্রুত এই নরপশুদের চিহ্নিত করে সর্বোচ্চ সাজা ফাঁসির দাবী জানাচ্ছি।